চসিকের অভিযানে ৯টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

আগের সংবাদ

বাংলাদেশে তিনদিনের সফরে আইক্যানের হাই অফিসিয়াল

পরের সংবাদ

শ্রীলঙ্কাকে ২-০ গোলে হারাল ভারত

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ , ৯:৪৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮, ৯:৪৬ অপরাহ্ণ

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের আগের এগারো আসরে সাতবারই শিরোপা জিতেছে ভারত। দক্ষিণ এশিয়ার বিশ^কাপ খ্যাত এই টুর্নামেন্টে গেল কয়েক আসর ধরে মূল দল পাঠায় না ভারত। অলিম্পিক দল পাঠায়। সেই দল নিয়েও তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কয়েকবার। এবারও অলিম্পিক দল নিয়ে এসেছে ভারত। ভারতের এই দলে মাত্র চারজন জাতীয় দলে খেলা খেলোয়াড় রয়েছেন। বাকিরা একেবারেই নতুন। সেই দল নিয়েও সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বাদশ আসরে জয় দিয়ে শুরু করেছে ভারত। আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে তারা শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে ২-০ ব্যবধানে।

বুধবার ম্যাচের শুরু থেকেই প্রভাব বিস্তার করে খেলেছে ভারত। তবে গোলের দেখা পেতে কিছুটা সময় লাগে তাদের। একের পর এক আক্রমণ শানিয়ে ম্যাচের ৩৫ মিনিটে কাঙ্খিত গোলের দেখা পায়। এ সময় ভারতের সুমিত পাসি ডি বক্সের সামনে বল বাড়িয়ে দেন মোহাম্মদ আশিক কুরুনিয়ানকে। আশিক বল নিয়ে ডি বক্সের মধ্যে ঢুকে পড়েন। প্লেসিং শটে বাম কর্ণার দিয়ে বল জালে পাঠান। ৩৯ মিনিটে নিশ্চিত গোলের সুযোগ মিস করেন লালিয়ানজুয়ালা। তার নেওয়া শট বারের উপর দিয়ে চলে যায়। তাতে ১ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্টিফেন ফিলিপ কন্সটানটাইনের শিষ্যরা।

বিরতির পর পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করে ভারত। এ সময় লালিয়ানজুয়ালা চাঙ্গতে দৃষ্টিনন্দন গোল করেন। বাম প্রান্ত থেকে বল নিয়ে শ্রীলঙ্কার দুজন রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের কাটিয়ে ডি বক্সের বাইরে থেকে ডানপায়ে কোণাকুণি শট নেন। এই কোণা থেকে সাধারণত গোল হয় না। কিন্তু তার নেওয়া শট ঠিকই জাল খুঁজে পায়। শ্রীলঙ্কার গোলরক্ষক বিস্ময়ের দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেন।৬৬ মিনিটে ব্যবধান আরো বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল ভারত। এ সময় কর্নায় পায় ভারত। কর্নার থেকে বল পেয়ে যান নিখিল পূজারি। তিনি শট নেন। কিন্তু মিস করেন।

ভারতের মুহুর্মূহ আক্রমণের মুখে শ্রীলঙ্কা আক্রমণ করার সুযোগই পায়নি। চোখে পড়ার মতো আক্রমণ বলতে ম্যাচের ৫৪ মিনিটে। এ সময় শ্রীলঙ্কার মিডফিল্ডার কাভিন্দু ইশানের বাড়িয়ে দেওয়া বল ডান পাশ দিয়ে ঢুকে ডান পায়ে ফরোয়ার্ড আশিকুর রহমান শট নেন। সেটা ধরে ফেলেন ভারতের গোলরক্ষক বিশাল কাইথ।

পরের ম্যাচে শুক্রবার মালদ্বীপের বিপক্ষে খেলবে শ্রীলঙ্ক। আর শেষ ম্যাচে ভারত রোববার খেলবে মালদ্বীপের বিপক্ষে।