অতিরিক্ত সময়ে আলীর গোলে জয় পাকিস্তানের

আগের সংবাদ

র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে জাবি প্রশাসন

পরের সংবাদ

কলকাতায় উড়াল সেতু ধস, বহু হতাহতের আশঙ্কা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮ , ৬:৪৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৮, ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

দক্ষিণ কলকাতার একটি উড়াল সেতু আচমকাই ধসে পড়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৫টার দিকে গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যস্ততম মাঝেরহাট সেতুটি হুড়মুড়িয়ে ধসে পড়ে।

আনন্দবাজার জানায়, সেই সময় সেতুর ওপর অনেক যানবাহন ছিল।বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। ঘটনার পরই এলাকায় আতঙ্ক ছড়ায়। ঘটনার পর দেখা যায়, বিক্ষিপ্তভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বেশি কিছু রক্তাক্ত দেহ এবং ভাঙাচোরা গাড়ি। উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থল থেকে ৯ জনকে উদ্ধার করে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে আসে।

ঘটনার কিছু ক্ষণের মধ্যেই উদ্ধারকাজে নামে দমকল, বিপর্যয় মোকাবিলা দল। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় সেনাবাহিনীও। উদ্ধারকাজে ছুটে আসেন এলাকার মানুষজন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, হঠাৎ প্রবল আওয়াজে সেতুর মাঝের অংশ ভেঙে পড়ে। সেতুর ওপরে যানবাহনগুলি ছিটকে পড়ে। বাস এবং বিভিন্ন গাড়ি-বাইকের আরোহীরা গুরুতর আহত হন।

মাঝেরহাট সেতুর খারাপ অবস্থা নিয়ে ট্রাফিক পুলিশ একাধিকবার সতর্ক করেছিল গণপূর্ত দপ্তরকে। অভিযোগ, সব জানার পরও সেতু মেরামতের উদ্যোগ নেয়নি তারা। যেখানে দুর্ঘটনা ঘটে, পিচ উঠে সেতুর মধ্যে গভীর গর্ত তৈরি হয়েছিল। লোহার বিম বেরিয়ে এসেছিল। তার মধ্যেই দীর্ঘদিন ধরে বৃষ্টির পানি জমে ছিল। মেরামতির অভাবেই সেতুটি ভেঙে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সেতুর নিচে কেউ চাপা পড়ে রয়েছেন কি না তা স্পষ্ট নয়। এই সেতুর নিচ দিয়ে গেছে রেললাইন। দুর্ঘটনাস্থল থেকে কিছুটা দূরেই ছিল একটি লোকাল ট্রেন। সেতুর যে অংশ ভেঙে পড়েছে, ট্রেনটি তার নিচে থাকলে আরও বেশি প্রাণহানির আশঙ্কা ছিল।

আড়াই বছর আগেই পোস্তায় ভেঙে পড়েছিল সেতু। সেই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ২৭ জনের। আহত হয়েছিলেন অন্তত ৮০ জন।