প্লাস্টিক ব্যাগে পাওয়া গেল ১৪ শিশুর দেহাবশেষ

আগের সংবাদ

স্বমেহনের দৃশ্যে অভিনয় নিয়ে যা বললেন স্বরা

পরের সংবাদ

দেশে ন্যায় বিচার নেই: বদরুদ্দোজা চৌধুরী

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮ , ১০:৩১ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮, ১০:৩১ অপরাহ্ণ

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, ছাত্র আন্দোলন দেশকে পথ দেখিয়ে দিয়েছে। রাজনীতিবিদদের চোখ খুলে দিয়েছে। ছাত্ররা ন্যায়বিচার চেয়েছে। যা সারাদেশে প্রতিধ্বনিত হয়েছে। তারা বুঝিয়ে দিয়েছে, দেশে ন্যায়বিচার নেই।

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে রোববার বিকল্পধারার সহযোগী সংগঠন প্রজন্ম বাংলাদেশের নতুন কর্মসূচি ‘প্ল্যান বি’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বয়সের দোহাই দিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার সমালোচনা করে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বি. চৌধুরী বলেন, কোন বয়সে মাকে মা ডাকব? বাবাকে বাবা ডাকব? মাতৃভূমি দেশকে ভালোবাসব?- এই প্রশ্ন কেন আসবে। কম বয়সী ছাত্ররা কী দেশকে ভালোবাসবে না? ন্যায়বিচার চাইতে পারবে না? তোমরা তোমাদের মতো করে দেশকে ভালোবাস। দেশের আমজনতার পাশে থাকবে। ভবিষ্যৎ তোমাদের হাতেই।

অনুষ্ঠানে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ছাত্ররা চোখ খুলে দিয়েছে। তাহলে তাদের পেটানোর সময় কি চোখ বন্ধ ছিল? তারা তো বলেছিল, তারা ন্যায়বিচার চায়। শান্তি চায়। নিরাপদ বাংলাদেশ চায়।

অনুষ্ঠানে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, প্রজন্ম মানে শুধু বয়স নয়, এর মানে হলো, দৃষ্টিভঙ্গি, নতুন চিন্তা, দর্শন, দিকদর্শন। কোটা ও নিরাপদ সড়ক নিয়ে আন্দোলন হয়েছে। সবাই বলেছে, তারা চোখ খুলে দিয়েছে। তার মানে কি সবার চোখ বন্ধ ছিল? এখন কি আবার খোলা চোখ বন্ধ হয়ে গেছে? কুষ্টিয়াতে একটি বাস মা-মেয়েকে ধাক্কা দিয়েছে। চালক জানে না কখন থামতে বা চলতে হবে। রাষ্ট্রের অবস্থাও তাই। নতুন প্রজন্ম এদের বিরুদ্ধে।

অনুষ্ঠানে প্রজন্ম বাংলাদেশের অহিংস রাজনৈতিক কর্মসূচি প্ল্যান বি তুলে ধরেন বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী। তিনি মাসব্যাপী ইয়ুথ ক্যাম্পেইন কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, দু’দলের হানাহানি ও ঝুঁকি থেকে বের হয়ে ভারসাম্যের সরকার দরকার। যার একজনের লাগাম অন্যজন টেনে ধরবে। বিশাল জনগোষ্ঠী এখন রাজনীতিকে পছন্দ করে না। তাদের বোঝাতে হবে। মাঠে নামতে হবে।

অহিংস ও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি আখ্যা দিয়ে প্ল্যান বি ঘোষণা করে তিনি বলেন, নতুন প্রজন্ম রক্ত দিতে নয়, ঘাম ও মেধা দিতে চায়। আগামী ১০, ১১ ও ১২ সেপ্টেম্বর অহিংস কর্মসূচি শুরু হবে। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানী আফতাব নগরে মাসব্যাপী সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত একই ক্যাম্পেইন চলবে। একই সঙ্গে চলবে রক্তদান কর্মসূচি।