কিশোরদের উলঙ্গ করে যৌন নির্যাতন, বৌদ্ধ সন্যাসী গ্রেফতার

আগের সংবাদ

খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচন নয়

পরের সংবাদ

মিয়ানমারের জলসীমায় ‘ভুতুড়ে জাহাজের’ সন্ধান

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ , ৬:৪৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮, ৬:৪৪ অপরাহ্ণ

মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনের কাছে সমুদ্রসৈকতে কন্টেইনারবাহী একটি বিশাল জাহাজ দেখতে পেয়েছেন দেশটির মৎস্যজীবীরা। এখন আটকা পড়া এই রহস্যময় জাহাজটি নিয়ে অনুসন্ধান চালাচ্ছে দেশটির পুলিশ। মিয়ানমারের জলসীমায় এবারই প্রথম এ ধরনের ‘ভুতুড়ে জাহাজের’ সন্ধান পাওয়া গেল।

কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, মিয়ানমারের বাণিজ্যিক রাজধানীর উপকূলের কাছে গত সপ্তাহে জেলেরা ‘স্যাম রাতুলাঙ্গি পিবি ১৬০০’ নামের জাহাজটির সন্ধান পায়। জাহাজটি কী করে মিয়ানমারের জলসীমায় এল এর পেছনে কোনো উদ্দেশ্য আছে কিনা সেসব খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ইয়াঙ্গুন পুলিশ বলছে, ‘ইন্দোনেশিয়ার পতাকাবাহী জাহাজটিতে কোন নাবিক বা পণ্য ছিল না’।

এদিকে বৃহস্পতিবার নৌ বাহিনী ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা আটকে পড়া ওই জাহাজটির ভেতর অনুসন্ধান চালান।

মিয়ানমার টাইমসকে দেশটির নাবিকদের স্বতন্ত্র একটি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অং কিয়াও লিন জানান, ‘স্যাম রাতুলাঙ্গি পিবি ১৬০০’ এখনো কাজ চালানোর মত সচল আছে।

বিশ্বে জাহাজ চলাচলের খবর দেওয়া মেরিন ট্রাফিক ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ‘স্যাম রাতুলাঙ্গি পিবি ১৬০০’ নামের জাহাজটি ২০০১ সালে নির্মাণ করা হয়। এ জাহাজের দৈর্ঘ্য ১৭৭ মিটারের (৫৮০ ফিট) বেশি।

সংবাদ সংস্থা এএফপির বরাতে বিবিসি জানায়, জাহাজটির সর্বশেষ অবস্থান রেকর্ড করা হয় ২০০৯ সালে, তাইওয়ান উপকূলে। ৯ বছর পর ইয়াঙ্গুনের কাছে এর খোঁজ মিলল।