আরও পাঁচটি কলেজকে সরকারি করা হয়েছে

আগের সংবাদ

বেপরোয়া গাড়ি ঠেকাতে মহাসড়কে বসবে ক্যামেরা

পরের সংবাদ

শহিদুলকে ডিভিশন দেওয়ার নির্দেশ

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ২৭, ২০১৮ , ৯:২৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: আগস্ট ২৭, ২০১৮, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে কারাবিধি অনুযায়ী প্রথম শ্রেণির মর্যাদা (ডিভিশন) দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) সাইফুজ্জামান হিরো আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে কারাবিধি অনুযায়ী ডিভিশন দেওয়ার নির্দেশ দেন।

গত ৬ আগস্ট শহিদুল আলমকে সাতদিনের রিমান্ডে পাঠান আদালত। পরবর্তীতে গত ১২ আগস্ট শহিদুল আলমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ঢাকা দায়রা জজ আদালতে শহিদুলের জামিন শুনানির তারিখ ধার্য রয়েছে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে গত ৫ আগস্ট রাতে শহিদুল আলমকে তার ধানমণ্ডির বাসা থেকে ৩০ থেকে ৩৫ জনের একটি দল ধরে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করে অভিযোগ করে তার পরিবার। পরে তার স্ত্রী জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক রেহনুমা আহমেদ শহিদুলকে ডিবি পরিচয়ে একদল লোক নিয়ে গেছে বলে জানান।

এরপরে ডিবির পক্ষ থেকে শহিদুল আলম তাদের হেফাজতে আছেন বলে জানানো হয়। পরের দিন বিকালে ডিবি পুলিশের (উত্তর) পরিদর্শক মেহেদী হাসান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে রমনা থানায় মামলা করেন।

ওই মামলায় শহিদুলকে গ্রেপ্তার শহিদুলকে ওই দিনই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আরমান আলী আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানান। পরে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আছাদুজ্জামান নূর শহিদুলকে সাতদিনের রিমান্ড দেন।

এরইমধ্যে শহিদুলকে নিয়ে নোবেলজয়ী বেশ কয়েকজন ব্যক্তিত্বসহ দেশি-বিদেশি নানা ব্যক্তি বিবৃতি দিয়েছেন। বিবৃতিতে তারা শহিদুলের মুক্তি চেয়েছেন। সর্বশেষ অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনও শহিদুলের সমর্থনে বিবৃতি দেন।