আরপিও সংশোধন নিয়ে ইসির বৈঠক রবিবার

আগের সংবাদ

টানা জয়ের পর ম্যানসিটির হোঁচট

পরের সংবাদ

মন্ত্রী-এমপিদের বিমানের প্রথম শ্রেণিতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ইমরানের

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ২৫, ২০১৮ , ৮:১৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০১৮, ৮:১৭ অপরাহ্ণ

রাষ্ট্রীয় তহবিলের অবাধ ব্যবহার এবং আইনপ্রণেতা ও সরকারি কর্মকর্তাদের বিমানের প্রথম শ্রেণিতে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে পাকিস্তান। এই নিষেধাজ্ঞার মধ্যে খোদ প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীও রয়েছেন। শুক্রবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী।

ফাওয়াদ বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি, সিনেট চেয়ারম্যান, স্পিকার ও মুখ্যমন্ত্রীরাসহ সকল শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা সাধারণ শ্রেণিতে ভ্রমণ করবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সেনা প্রধানকে কখনো প্রথম শ্রেণিতে ভ্রমণের অনুমতি দেওয়া হয়নি এবং তিনি সবসময় বিজনেস শ্রেণিতে ভ্রমণ করেছেন।

ফাওয়াদ জানান, প্রধানমন্ত্রী, প্রেসিডেন্ট ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের জন্য যে বিবেচনামূলক তহবিল থাকতো তাও বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

তার দাবি, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এই তহবিল থেকে এক বছরে পাঁচ হাজার ১০০ কোটি রুপি খরচ করেছেন।

নতুন প্রধানমন্ত্রী বিদেশ ও অভ্যন্তরীণ সফরের জন্য বিশেষ বিমান ব্যবহার বন্ধের এবং বিজনেস শ্রেণি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

গত ২৫ জুলাই পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী হন ইমরান খান। এরপরই তিনি জানিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত বিশাল সরকারি বাসভবনে তিনি থাকবেন না। প্রধানমন্ত্রীর সামরিক উপদেষ্টার জন্য যে বাসভবনটি ব্যবহৃত সেখানেই তিনি থাকবেন। এছাড়া বিশাল গাড়িবহর ব্যবহার না করার কথাও তিনি জানিয়েছিলেন।