সিসিক নির্বাচন: প্রচারণায় নামছেন কেন্দ্রীয় নেতারা

আগের সংবাদ

রাষ্ট্রপতি বৃহস্পতিবার দেশে ফিরছেন

পরের সংবাদ

মৎস্য উৎপাদনে দুই ধাপ এগোল বাংলাদেশ

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৮, ২০১৮ , ১০:৫৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ১৮, ২০১৮, ১০:৫৬ অপরাহ্ণ

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ জানিয়েছেন, অভ্যন্তরীণ মৎস্য উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান এখন তৃতীয়। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) ২০১৮ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলাদেশের আগের দুটি অবস্থানে রয়েছে চীন ও ভারত। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল পাঁচ নম্বরে।

বুধবার রাজধানীর মৎস্য ভবনে ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ’ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

তিনি আরও জানান, জিডিপিতে মৎস্য খাতের অবদান এখন তিন দশমিক ৫৭ শতাংশ। কৃষিজ জিডিপিতে এই খাতের অবদান ২৫ দশমিক ৩০ শতাংশ। দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ১১ শতাংশের বেশি মানুষ মৎস্য আহরণে সম্পৃক্ত।

২০১৭-১৮ সালে প্রায় ৬৯ হাজার মেট্রিক টন মৎস্য ও মৎস্যজাত পণ্য রপ্তানি করে প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হয়েছে বলেও জানান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী।

জনপ্রতি গড়ে ৬০ গ্রাম মাছ খাওয়া প্রয়োজন উল্লেখ করে মন্ত্রী জানান, উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ায় দেশের মানুষ এখন গড়ে ৬২ দশমিক ৫৮ গ্রাম মৎস্য গ্রহণ করছেন।

জাটকা নিধন ঠেকাতে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ায় ২০১৭-১৮ সালে প্রায় পাঁচ লাখ টন ইলিশ উৎপাদিত হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ। ২০০৮-০৯ সালে এর পরিমাণ ছিল প্রায় তিন লাখ টন।

মন্ত্রী জানান, জাটকা নিধন রোধে গত অর্থবছরে প্রায় আড়াই লাখ জেলে পরিবারকে চার মাসে ৪০ হাজার টন খাদ্যসহায়তা ও ২২ দিন পর্যন্ত মা-ইলিশ আহরণ বন্ধ রাখায় গত দুই বছরে প্রায় চার লাখ জেলে পরিবারকে প্রায় ১৫ হাজার টন ভিজিএফ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, জরিপ জাহাজ ‘আরভি-মীন সন্ধানী’র মাধ্যমে নিজেদের সমুদ্রসীমায় ২৯৮ প্রজাতির মাছ, ২৩ প্রজাতির চিংড়িমাছ, ১৬ প্রজাতির ক্রাস্টেসিয়ান ও ১২ প্রজাতির মলাস্কা চিহ্নিত করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এম রায়সুল আলম মণ্ডল, মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক গোলজার গোসেন, ফিশারিজ ডেভেলপমেন্ট করপোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহমেদ, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ইয়াহিয়া মাহমুদ প্রমুখ।

মৎস্য সপ্তাহ ২২-২৮ জুলাই: ‘স্বয়ংসম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ স্লোগান নিয়ে আগামী ২২ থেকে ২৮ জুলাই সারাদেশে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদযাপিত হবে। ২৮ জুলাই গণভবনের লেকে পোনা অবমুক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য সপ্তাহের সমাপনী ঘোষণা করবেন। মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে বুধবার মৎস্য ভবন থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বের হওয়া শোভাযাত্রা বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মৎস্য ভবনে গিয়ে শেষ হয়।

এদিকে খুলনা অফিস জানিয়েছে, মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে বুধবার খুলনা সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু ছাইদ জানান, খুলনা জেলা এখন মৎস্যে উদ্বৃত্ত। মৎস্য উৎপাদনে এটি দেশের ষষ্ঠ বৃহত্তম জেলা।

কিশোরগঞ্জ অফিস জানিয়েছে, বুধবার জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এ সময় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিনুল ইসলামসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। কিশোরগঞ্জে গত বছর আট হাজার ১৬১ মেট্রিক টন মাছ উদ্বৃত্ত ছিল বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।