মাদক মামলার আসামি রাসেল গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

বিদেশে বাংলাদেশের পোশাক সামগ্রির মূল্যবৃদ্ধির আহ্বান তোফায়েলের

পরের সংবাদ

বিএনপি জাতীয় নির্বাচন বানচালের চক্রান্ত করছে

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১৭, ২০১৮ , ৭:৩৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুলাই ১৭, ২০১৮, ৭:৩৫ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘বিএনপি আগামী জাতীয় নির্বাচন বানচালের চক্রান্ত শুরু করছে।’

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) ১৪ দলের সভাশেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মোহাম্মদ নাসিম। খবর- বাসসের।

রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগের সভাপতির কার্যালয়ে ওই সভার আয়োজন করা হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাই সব রাজনৈতিক দল আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। এমনকি বিএনপিও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। কিন্তু তারাই নির্বাচন নিয়ে চক্রান্ত করছে।’

নাসিম বলেন, ‘গত জাতীয় নির্বাচনে আমরা দেশের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে যেভাবে বিএনপি- জামায়াতের সন্ত্রাসী কার্যক্রম প্রতিহত করেছিলাম আগামী নির্বাচনেও সেভাবে তাদের যেকোনো চক্রান্ত প্রতিহত করা হবে।’

এ সময় সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) (একাংশ) সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য অসিত বরণ রায়, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ব্যরিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, শিল্প ও বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সাত্তার উপস্থিত ছিলেন।

কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘সামনে জাতীয় নির্বাচন। সংবিধান অনুযায়ী ক্ষমতা পরিবর্তনে নির্বাচনের বিকল্প কিছু নেই। নির্বাচন ছাড়া কোনো দল দেশ পরিচালনায় অংশ নিতে পারে না।’

নাসিম বলেন, ‘আমরা চাই বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে জনগণের রায় গ্রহণ করুক। আশা করি আগামী নির্বাচনেও জনগণ উন্নয়ন ও অর্জনের পক্ষে নৌকা মার্কাকেই বিজয়ী করবে।’

বিএনপি-জামায়াত রাজনীতিতে কোনো ইস্যু না পেয়ে কোটাবিরোধী আন্দোলনের নামে মাঠে নেমেছে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে যাদের জন্য কোটা তারাই কোটা চায় না বলে উল্লেখ করে কোটা ব্যবস্থা না রাখার কথা ঘোষণা দিয়েছেন।’

কোটা আন্দোলন কারীদের উদ্দেশ্যে নাসিম বলেন, ‘আপনারা ধৈর্য ধরুন, একটি ব্যবস্থা বাতিল করে আরেকটি নতুন ব্যবস্থা চালু করতে সময়ের প্রয়োজন। মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে প্রধান করে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে অনুরোধ জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘কোটা আন্দোলনেকে ব্যবহার করে কোনো মহল যাতে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে না পারে সেজন্য দ্রুততার সঙ্গে প্রতিবেদন জমা দিন।’

আসন্ন তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘কেন্দ্রীয় ১৪ দলের পক্ষ থেকে আগেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের সমর্থন জানানো হয়েছে। তাদের নির্বাচনী প্রচারের জন্য তিনটি টিম গঠন করা হয়েছে। দিলীপ বড়ুয়ার নেতৃত্বে সিলেট সিটি করপোরেশন, শেখ শহীদুল ইসলামের নেতৃত্বে বরিশাল সিটি করপোরেশন এবং ফজলে হোসেন বাদশার নেতৃত্বে রাজশাহী সিটি করপোরেশনে কেন্দ্রীয় ১৪ দল নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী ২১ জুলাই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিকেল ৩টায় আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উন্নয়ন ও অর্জনের জন্য যে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে তাতে অংশ নেবে কেন্দ্রীয় ১৪ দল।’

সভায় ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের দ্রুত সুস্থতা কামনা করা হয়।

এর আগে শেখ শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা পরিচালনা করেন মোহাম্মদ নাসিম।