এআইসহ প্রযুক্তির সব ব্যবহার আছে এলজির টিভিতে

আগের সংবাদ

মুক্তি পেল ইরফান খানের ‘কারবাঁ'র ট্রেলর

পরের সংবাদ

ইটালিয়ান ব্র্যান্ডের বেনেলি টিএনটি ১৫০ বাজারে

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ২৭, ২০১৮ , ৩:৩১ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুন ২৭, ২০১৮, ৩:৩১ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের বাজারে আনুষ্ঠানিকভাবে এলো মোটরসাইকেল বেনেলি টিএনটি ১৫০। এটি ইটালিয়ান ব্র্যান্ড। বাইক টি রেসিং ঘরানার। এই বাইকটি বছর দুয়েক আগে বেনেলির একমাত্র পরিবেশক স্পিডোজ লিমিটেড প্রদর্শন করে আসছে। অবশেষে এটি বিক্রির ঘোষণা করলো বেনেলি বাংলাদেশ।

বাইকটির দাম ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৯০০ টাকা। যা বাংলাদেশের বড় মার্কেটপ্লেস বিক্রয় ডট কম সাইট-এর মাধ্যমে কিনলে ফ্রি রেজ্রিষ্ট্রেশন পাবেন ক্রেতারা। এ নিয়ে বেনেলির অফিশিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর স্পিডোজ লিমিটেড-এর সাথে বিক্রয়-এর একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়।

বেনেলি মূলত ইতালিয়ান মোটরসাইকেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশে কিওয়ে এবং বেনেলির অফিশিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর হচ্ছে স্পিডোজ লিমিটেড।

বেনেলির অফিশিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর স্পিডোজ লিমিটেড-এর সাথে বিক্রয়-এর একটি চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়।

প্রতিষ্ঠানটির উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক জামান এস খান সৌরভ বলেন, এই বেনিলি বাইকে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হলো এটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ব্রেকে ব্যবহৃত হয়েছে সিবিএস (কমবাইনিং ব্রেকিং সিস্টেম) প্রযুক্তি। যা অনেকের কাছে আকর্ষণীয় মনে হবে। এছাড়াও বেনেলি টিএনটি ১৫০ তরুণ এবং যুবকদের মনের মতো করে বানানো একটি মোটরবাইক।

এতে গতির সঙ্গে রাইডিং কমফোর্টও মিলবে শতভাগ। ‘এস্কেপ মেশিন’ নামে পরিচিত বাইকটির লুকিং বেশ আকর্ষণীয়। সামনে থেকে দেখলে মনে হবে কোন ক্ষীপ্র চিতা তাকিয়ে আছে রাগান্বিত দৃষ্টিতে। এখনি হয়ত ছুটবে শিকারের পানে।

১৫০ সিসির এই বাইকটিতে রয়েছে ইএফআই ওয়াটার কুল ইঞ্জিন। সারাদিন বাইক চালানোর নিশ্চয়তা রয়েছে এই ইঞ্জিনে। ১৩.৫ লিটার ফুয়েল ট্যাঙ্ক, রেসিং রেয়ার সাসপেনশন, রেস ইন্সপায়ারড এক্সজস্ট, প্রশস্ত চাকা এবং টায়ার, অ্যালুমিনিয়াম বডি, ফোর স্ট্রোক এসওএইচসি ইঞ্জিন এবং হাই পারফরমেন্স ডিস্ক ব্রেক রয়েছে এই বাইকটিতে।

দুই ভালব বিশিষ্ট বাইকটিতে সিঙ্গেল সিলিন্ডার ব্যবহার করা হয়েছে। ইঞ্জিন ১৩.৮২বিএইচপি ও ১৩.৫এনএম টর্ক সমৃদ্ধ।

৫ স্পিড গিয়ার বক্সের বাইকটিতে আপ সাইড ডাউন ফ্রন্ট সাসপেনশন ও রিয়ার মনোশক সাসপেনশন সংযোজন করা হয়েছে।

দেখতে আকর্ষণীয় এই বাইকটির ওজন ১৩৬ কেজি। এর দুই চাকায়ই অ্যালয় হুইল এবং টিউবলেস টায়ার রয়েছে। ফ্রন্টে আছে ২৬০মিমি ডিস্ক ব্রেক। রিয়ারে আছে ২৪০ মিলিমিটার ডিস্ক ব্রেক। এতে কম্বি ব্রেকিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে।

মহাখালীতে স্পিডোজ লিমিটেডের বিক্রয় কেন্দ্রে বেনেলি টিএনটি প্রদর্শিত হচ্ছে। সেখানে গিয়ে টেস্ট ড্রাইভ দেয়ার সুযোগ রয়েছে।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা