ক্লাউড কনফারেন্সিং সল্যুশন আনল রবি

আগের সংবাদ

সৌদিতে স্টিয়ারিং ধরলেন মহিলারা

পরের সংবাদ

মেইড ইন বাংলাদেশ ফোরজি ফোন বাজারে

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ২৪, ২০১৮ , ১:১৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: জুন ২৪, ২০১৮, ১:১৯ অপরাহ্ণ

ওয়ালটন বাজাওে এনেছে দেশে তৈরি সাশ্রয়ী মূল্যের চারটি ফুল-ভিউ ডিসপ্লের ফোরজি ফোন। ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত উচ্চমানের এই ফোনগুলো তৈরি হয়েছে গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায়। বাজারে আসা এই চারটি ফোনের মডেল প্রিমো জিএফসেভেন, প্রিমো জিএমথ্রি, প্রিমো আরফাইভ এবং প্রিমো আরএক্সসিক্স। দাম যথাক্রমে ৫ হাজার ৯৯৯, ৭ হাজার ১৯৯, ৯ হাজার ৯৯৯ এবং ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা। সবগুলো ফোনই অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ ভার্সন ওরিও ৮.১ পরিচালিত।ওয়ালটন সেলুল্যার ফোন উৎপাদন বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক এসএম রেজওয়ান আলম বলেন, এ বছর দেশে চালু হয়েছে ফোরজি বা চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক সেবা। কিন্তু বাজারে পর্যাপ্ত ফোরজি স্মার্টফোনের যোগান নেই। যা আছে তার বেশিরভাগের মূল্য বেশি। ফলে সব আয়ের মানুষের জন্য ফোরজি সেবা পাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। সবকিছু বিবেচনায় ঈদ উপলক্ষ্যে ক্রেতাদের চাহিদা, রুচি ও ক্রয়ক্ষমতার ভিত্তিতে ভিন্ন ভিন্ন দাম ও কনফিগারেশনের এই ফোনগুলো বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। জিএফসেভেন এবং জিএমথ্রি মডেলে ব্যবহৃত হয়েছে ৫.৩৪ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে। কোয়াড কোর প্রসেসরসমৃদ্ধ ফোন দুটিতে ১ জিবি র‌্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারন্যাল স্টোরেজ ছাড়াও রয়েছে মালি-টি৭২০ এবং পাওয়ার ভিআর জিই৮১০০ গ্রাফিক্স। ২ হাজার ৭০০ এমএইচ ব্যাটারিযুক্ত জিএফসেভেনে সামনে ও পেছনে আছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। আর ৪ হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারির ওটিজি ও ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সরযুক্ত জিএমথ্রি মডেলের সামনে ও পেছনে আছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত যথাক্রমে ৫ ও ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ৩ হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিসমৃদ্ধ প্রিমো আরফাইভ এবং প্রিমো আরএক্সসিক্স মডেলে ব্যবহৃত হয়েছে ৫.৭২ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে। ১৬ জিবি স্টোরেজযুক্ত উভয় ফোনের পেছনে রয়েছে পিডিএএফ প্রযুক্তির ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। আরফাইভ মডেলের সামনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের। পাওয়ার ভিআর জিই৮১০০ গ্রাফিক্সসমৃদ্ধ ২ জিবি র‌্যামের ওটিজি সাপোর্টেড ফোনটির সুরক্ষায় রয়েছে ফেস আনলক ও ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর। নিখুঁত ও স্পষ্ট সেলফির জন্য আরএক্সসিক্স মডেলের সামনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফিংগারপ্রিন্ট ও ওজিটি সমর্থিত ৩ জিবি র‌্যামের ফোনটিতে রয়েছে ১.৪৫ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর এবং মালি টি৭২০ গ্রাফিক্স। বাংলাদেশে তৈরি এই স্মার্টফোনগুলোয় ৩০ দিনের ইনস্ট্যান্ট রিপ্লেমেন্টসহ ১০১ দিনের প্রায়োরিটি বিক্রয়োত্তর সেবা মিলবে।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা