হার্ট অ্যাটাক : হাসপাতালে ভর্তি অভিনেত্রী তাজিন

আগের সংবাদ

ফেসবুকের নতুন ফিচারে যা রয়েছে?

পরের সংবাদ

অল্প সময়ের মধ্যেই কক্ষপথে স্যাটেলাইট

প্রকাশিত হয়েছে: মে ২২, ২০১৮ , ৪:৩১ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ২২, ২০১৮, ৪:৩১ অপরাহ্ণ

বহুল প্রতীক্ষিত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট আর অল্প সময়ের মধ্যে নিজ কক্ষপথে পৌঁছে যাবে। কক্ষপথের ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রিতে অবস্থান নিশ্চিত হলেই স্যাটেলাইটের মূল পরীক্ষা নিরীক্ষা অর্থাৎ ইন অরবিট টেস্ট বা আইওটির পরীক্ষাটি শুরু হবে।

এমন তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসির স্যাটেলাইট প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।

তারা জানান, সোমবার রাত পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ ফ্লোরিডার লঞ্চ প্যাড থেকে উৎক্ষেপণের পর প্রায় ৩৬ হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে ১১৮ দশমিক ৯ ডিগ্রিতে পৌঁছেছিল। এ হিসাবে মঙ্গলবারের মধ্যেই স্যাটেলাইটটির তার নিজের কক্ষপথে পৌঁছে যাওয়ার কথা।

প্রকল্প পরিচালক মো. মেসবাহউজ্জামান বলেন, আইওটি হওয়ার পরেই গাজীপুর গ্রাউন্ড স্টেশনে স্যাটেলাইটের নিয়ন্ত্রণ আসবে। এর আগ পর্যন্ত এটি থ্যালাসের অন্য তিন গ্রাউন্ড স্টেশন- দক্ষিণ কোরিয়া, ফ্রান্স ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে নিয়ন্ত্রিত হবে।

এর মধ্যে থ্যালাসের স্যাটেলাইট প্রকৌশলীরা ঢাকায় এসেছেন। দু’একদিনের মধ্যে তারা গাজীপুর ও রাঙ্গামাটির গ্রাউন্ড স্টেশনে ইন অরবিট সংক্রান্ত কাজগুলো শুরু করবেন, বলে জানান প্রকল্প পরিচালক ।

‌’এর পর প্রায় তিন সপ্তাহ এক সঙ্গে গাজীপুর গ্রাউন্ড স্টেশন এবং অন্য তিন স্টেশন এক সঙ্গে স্যাটেলাইটের সিগনাল নিয়ে কাজ করবে। এরই এক পর্যায়ে গাজীপুরে স্যাটেলাইটের নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তর করা হবে- বলছিলেন মেসবাহউজ্জামান।

এর আগের হিসাব অনুসারে ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমায় স্যাটেলাইটের নিজ কক্ষপথে অবস্থান নিতে নয় থেকে ১০ দিন লাগার কথা। যুক্তরাষ্ট্রের সময়ানুসারে গত ১১ মে বিকাল চারটা ১৪ মিনিটে মহাকাশের পথে উড়ে যায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১।

সম্প্রতি বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, তাদের কাছে যে খবর রয়েছে তাতে কক্ষপথে যেতে ঠিকঠাক মতোই এগিয়ে যাচ্ছে স্যাটেলাইট।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মহাকাশে স্যাটেলাইট উড়ে যাওয়ার পর দুটি ধাপে এর উৎক্ষেপণ প্রক্রিয়া শেষ হয়।

এর মধ্যে উৎক্ষেপণ স্থান থেকে ৩৬ হাজার কিলোমিটার দূরে কক্ষপথে যাওয়ার পথে ৩৫ হাজার ৭০০ কিলোমিটারই পার হয়ে গেছে কয়েক মুহূর্তে। এরপর রকেটের স্টেজ-২ খুলে গেলে এটির গতি ধীর হয়ে যায়।

প্রথম ১০ দিনের এই প্রক্রিয়াকে বলে লঞ্চ অ্যান্ড আরলি অরবিট ফেইজ, যেটি আজ কালের মধ্যেই শেষ হবে।

কক্ষপথে চূড়ান্তরূপে অবস্থান নেওয়ার পর ৩৬ হাজার কিলোমিটার ওপর দিয়ে পৃথিবী প্রদক্ষিণ করবে স্যাটেলাইটটি।

এ উচ্চতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পৃথিবীর সমান গতিতেই ঘুরবে। মানে পৃথিবীর মতো ২৪ ঘন্টায় একবার সূর্য প্রদক্ষিণ করবে। ফলে পৃথিবী হতে স্যাটেলাইটটিকে স্থির মনে হবে।

তবে সব কিছু শেষ করে এ স্যাটেলাইট থেকে সেবা পেতে সব মিলে তিন মাসের মতো সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।