ভারতের শীর্ষ নেতাদের হত্যায় দাউদ ইব্রাহিমের ষড়যন্ত্র ফাঁস

আগের সংবাদ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও প্রক্টর ‘গুজবের মহানায়ক’

পরের সংবাদ

রেকর্ড সংগ্রহের পরও নারীদের সিরিজ হার

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৯, ২০১৮ , ৯:১৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: মে ১৯, ২০১৮, ৯:১৯ অপরাহ্ণ

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে হার যেন পিছু ছাড়ছে না বাংলাদেশ নারী দলের। এবার টি-টোয়েন্টির রেকর্ড সংগ্রহের পরও হেরে সিরিজ খোয়াতে হলো সালমা খাতুনদের। তবে রেকর্ড সংগ্রহের পর এদিন টাইগ্রেসরা পেল নিজেদের ইতিহাসে প্রথম কোনো হাফসেঞ্চুরিয়ানকে।

এদিন দ.আফ্রিকা নারীদের ১৭০ রানের বড় লক্ষ্য তাড়ায় ৫ উইকেটে ১৩৭ রান করে বাংলাদেশ। টি-২০’তে এটাই তাদের সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১৬ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৬ উইকেটে করা ১১৭ রান ছিল সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংস। আর ৩৬তম ম্যাচে এসে বাংলাদেশ পেল প্রথম কোনো ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরিয়ানকে। কিন্তু শামীমা সুলতানা দারুণ ফিফটি করেও দলকে জেতাতে পারেননি।

৩২ রানে জিতে তিন ম্যাচে ২-০তে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে প্রোটিয়া নারীরা।

ব্লোয়েমফন্টেইনে ১৭০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সুলতানা ৪৩ বলে ৬টি চার ও একটি ছক্কায় বরাবর ৫০ করে মাঠ ছাড়েন। দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৭ করেন ফারজানা হক। কিন্তু নির্ধারিত ওভার খেললেও জয়ের কাছে যেতে পারেনি সফরকারীরা।

প্রোটিয়া বোলারদের মধ্যে দুটি উইকেট পান শাবনিম ইসমাইল। এছাড়া একটি করে উইকেট পান আয়াবোঙ্গা কাহকা ও মারিজান্নে কাপ্প।

টসে হেরে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৯ রানের বড় স্কোর গড়ে স্বাগতিক দ.আফ্রিকা নারী দল। সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন সুনে লুস। আর ৬৬ রান আসে ড্যান ফন নেইক্রেক।

বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে ২টি করে উইকেট তুলে নেন নাহিদা আকতার ও পান্না ঘোষ।

বাংলাদেশ নারী দল এর আগে এই সফরে পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে সবকটিতে হেরে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল।