রণবীর সিং তার সাফল্যের পুরো কৃতিত্ব দিলেন রণবীর কাপুরকে

আগের সংবাদ

দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

পরের সংবাদ

চট্টগ্রাম বাণিজ্যমেলায় ক্রেতা আকর্ষণে নানা আয়োজন

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ১৯, ২০১৮ , ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: মার্চ ১৯, ২০১৮, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

সন্ধ্যায় সুদৃশ্য গেট দিয়ে মেলায় ঢুকতেই চোখ আটকে যায় বিশাল বটগাছ দেখে। অনেকটা গ্রামীণ পরিবেশ। বটগাছের বড় বড় ডালপালা জড়িয়ে আছে অজগর শাপ। আর অন্য ডালে দুই ধনেশ পাখি বসে আছে। বটগাছকে ঘিরে নিচে দর্শনার্থীরা উপভোগ করছে বানরের নাচ, বায়োস্কোপ। কেউ কেউ টিয়া পাখি দিয়ে করে নিচ্ছেন ভাগ্য গণনা। ফ্রি বেলুন নিতে ব্যস্ত রয়েছে শিশুরা। আর এর নিচেই দোতলা ঘরের ভেতরে চলছে মার্কসের বিভিন্ন পণ্যের প্রদর্শনী ও কেনাকাটা। আর উপরে রয়েছে ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প। মানুষ নিচ্ছেন ফ্রি চিকিৎসা। এমন আকর্ষণীয় গ্রামীণ আবহ তৈরি করেছে দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আবুল খায়ের গ্রুপ ‘মার্কস গোল্ডেন ট্রি হাউজ’। এ ছাড়া কিসোয়ান, হাতিল ফার্নিচার, বনফুল ইরানি-থাই ইম্পোরিয়ামসহ এবারের মেলায় অংশগ্রহণ করা প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের প্যাভেলিয়নের নান্দনিকতার ছোঁয়ায় ছাপ রয়েছে। যা অন্যান্য বারের মেলার চেয়ে এবারের মেলাকে আলাদা করে তুলেছে। মেলা প্রাঙ্গণে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নান্দনিক ও দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন। বিক্রেতাদের হাঁকডাক শিশু থেকে বৃদ্ধ, নানা বয়সী মানুষের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। চট্টগ্রাম চেম্বার আয়োজিত নগরীর পলোগ্রাউন্ড মাঠে ২৬তম এই আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

আবুল খায়ের কনস্যুমার গুডসের সহকারী ব্যবস্থাপক এ কে এম শহীদুল ইসলাম সোহাগ ভোরের কাগজকে বলেন, গাছ কেটে পরিবেশ যাতে ধ্বংস না করার সচেতনতা তৈরি এবং গ্রাম্য আবহে মানুষকে সচেতন করার ছোট্ট এ প্রয়াস। মেলায় স্থান পেয়েছে গৃহস্থালীর পণ্য থালা, বাসন থেকে শুরু করে পোশাক, ইলেকট্রনিক্স, জুয়েলারিসামগ্রী, ফার্নিচারসহ সব শ্রেণির পণ্য। ক্রেতাদের আকর্ষণ বাড়াতে কোম্পানিগুলোও মেলা উপলক্ষে দেয়া হচ্ছে বিশেষ ছাড় ও লটারিতে জেতার লোভনীয় অফার। যেখানে হয়েছে মোটরসাইকেল, স্বর্ণসহ লাখ লাখ টাকার পুরস্কার। এবারের মেলায় প্রায় সাড়ে চারশ স্টলে নিজেদের পণ্যের পসরা সাজিয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। ছোট বড় প্যাভিলিয়ন রয়েছে চল্লিশটি। বেচাবিক্রি পুরোদমে শুরু না হলেও এবার ভালো সাড়া পাওয়ার আশা উদ্যোক্তা-ব্যবসায়ীদের। মেলায় আগত বিদেশি স্টলগুলোতেও ভিড় দেখা গেছে। বিশেষ করে মহিলাদের কালেকশন হাউসগুলোতে এ ভিড় বেশি। নগরীর পাঁচলাইশের বাসিন্দা তাহমিনা হক দেখছিলেন ইরানি গোল্ড প্লেটের তৈরি বিভিন্ন রকমের অলঙ্কার সেট। তিনি ভোরের কাগজকে বলেন, মেলায় আসলাম। ঘুরে ঘুরে দেখছি। তবে গোল্ড প্লেটের তৈরি জিনিসগুলো খুব সুন্দর। পছন্দ হলে কিনে নেব।

মেলায় আসা ফরেন প্যাভিলিয়নের ইরানি গোল্ড প্লেট হাউসের মো. আজহার ভোরের কাগজকে বলেন, চট্টগ্রামে এবারের আয়োজনে ক্রেতা-দর্শনার্থী অন্যবারের চেয়ে বেশি। মেলা শুরু হয়েছে মাত্র কয়েকদিন হলো। এরই মধ্যে জমে উঠেছে। বিক্রিও ভালো। অন্যদিকে ভারতের কাশ্মিরি স্মাইলের মোহাম্মদ ওয়াইস বলেন, আমাদের এখানে কাশ্মিরের প্রসিদ্ধ শাল, স্যুট ও নানা রকমের হোম ফার্নিচার্স আইটেম রয়েছে। ইতোমধ্যে ভালো সাড়া পাচ্ছি ক্রেতাদের।

মেলা নিয়ে আশাবাদী চেম্বারের সহসভাপতি ও মেলা কমিটির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ জামাল আহমেদ ভোরের কাগজকে বলেন, আমরা চাই, এ মেলার আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজস্বতা তৈরি হোক। দেশীয় পণ্যের প্রদর্শন এবং আন্তর্জাতিকভাবে দেশীয় পণ্যের পরিচিতি তুলে ধরার বড় মাধ্যম হিসেবে ভূমিকা রাখছে চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা বলেন তিনি । চট্টগ্রাম চেম্বারের আয়োজনে গত সাত মার্চ শুরু হয় আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। এবারের মেলায় ২৭৮টি ছোট বড় স্টলে দেশি-বিদেশি ৪৫০টি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য প্রদর্শন করছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলা এ মেলায় প্রবেশ মূল্য ধরা হয়েছে ১০ টাকা। মাসব্যাপী এই মেলার পার্টনার কান্ট্রি থাইল্যান্ডসহ পাঁচটি দেশ তাদের পণ্য নিয়ে হাজির হয়েছে মেলায়। চলবে আগামী সাত এপ্রিল পর্যন্ত।